অনেকেই নামাজ পড়ে, রোজা রেখে দোয়া করেছেন আমার জন্য

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে জায়েদ খানের প্রার্থিতা বৈধ বলে রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট। বিচারপতি মামনুন রহমান ও বিচারপতি দিলীরুজ্জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ বুধবার (২ মার্চ) এ রায় দেন। এদিকে তাৎক্ষণিক এক প্রতিক্রিয়ায় জায়েদ খান বলেন, তিনি ন্যায়বিচার পেয়েছেন। এসময় তার জন্য অনেক শিল্পী, শুভাকাঙ্খীরা নামাজ পড়েছেন, দোয়া করেছেন বলেও জানান তিনি।

এই চিত্রনায়ক বলেন, ‘অনেক আইনজীবী আমার জন্য লড়েছেন, তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। মিডিয়ার প্রতি কৃতজ্ঞ, আপনারা সবসময় সত্য প্রকাশ করেছেন। শিল্পীদের প্রতি কৃতজ্ঞ, যারা আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছেন। অনেক ভক্ত-শিল্পী নামাজ পড়ে, রোজা রেখে আমার জন্য দোয়া করেছেন; তাদের প্রতি আমার কৃতজ্ঞতা ও ভালোবাসা।’

নিপুণের উদ্দেশ্যে জায়েদ খান বলেন, ‘নিপুণের উচিত ছিল নির্বাচন মেনে নিয়ে ফুল দিয়ে বরণ করা। সেটা না করে বাধাগ্রস্ত করেছে। যাই হোক, আমি সমিতির নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক। আমার এখানে ৫০০ শিল্পী রয়েছে। আমার কথা হচ্ছে, শিল্পীদের উন্নয়নে নিপুণও কাজ করুক।’

এর আগে গত ২৮ জানুয়ারি শিল্পী সমিতির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। পর দিন প্রাথমিক ফলে জায়েদ খানকে সাধারণ সম্পাদক হিসেবে জয়ী ঘোষণা করা হয়। পরে নির্বাচনি আপিল বোর্ডের কাছে এ নিয়ে লিখিত অভিযোগ করেন নিপুণ। আপিল বোর্ড সমাজসেবা অধিদপ্তরে চিঠি পাঠায়। পরিপ্রেক্ষিতে ২ ফেব্রুয়ারি সমাজসেবা অধিদপ্তর এক চিঠিতে জানায়, আপিল বোর্ড এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে। ৫ ফেব্রুয়ারি আপিল বোর্ড জায়েদ খানের প্রার্থিতা বাতিল করে নিপুণকে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করে।

     আরো পড়ুন....

পুরাতন খবরঃ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  

ফেসবুকে আমরাঃ