কুমিল্লায় ছেলের সামনেই ফাঁস দিয়ে প্রাণ দিলেন মা

কুমিল্লার লাকসামে নাজমা বেগম নামে এক প্রবাসীর স্ত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার (১৬ জানুয়ারি) রাতে লাকসাম উপজেলা পরিষদের উত্তর পাশে একটি বহুতল ভবনের নিচতলা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত নাজমা বেগম জেলার মনোহরগঞ্জ উপজেলার সরেসপুর ইউনিয়নের পালপাড়া গ্রামের প্রাবাসী নাছির উদ্দিনের স্ত্রী। তিনি ২ সন্তানের মা।

লাকসাম থানার ওসি মেজবাহ উদ্দিন ভূইয়া এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, লাকসাম পৌরশহরের পশ্চিমগাঁও এলাকায় আবদুল মতিন প্রফেসরের চারতলা ভবনের নিচতলায় ভাড়া থাকতেন নাজমা আক্তার। দুইদিন আগে বড় ছেলে নাহিদ নানার বাড়ি মনোহরগঞ্জে যায়। রোববার ছোট ছেলে নাফিজকে সঙ্গে নিয়ে দুপুরের খাবার খেয়ে শোয়ার ঘরে যান নাজমা। পরে নাজমা আক্তার তার স্বামী নাছির উদ্দীনের সঙ্গে মুঠোফোনে কথা বলেন। এ সময় তাদের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়।

একপর্যায়ে ছেলে নাফিজের সামনে ওড়না পেঁচিয়ে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন নাজমা। এ সময় নাফিজের চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এসে নাজমাকে ঝুলন্ত দেখতে পান। খবর পেয়ে রাত ৮টার দিকে লাকসাম থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মরদেহ উদ্ধার করে। সোমবার সকালে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

নাজমা মৃত্যুর পূর্বে একটি চিরকুট লিখে গেছেন। এতে লিখেছেন, আমি বাঁচতে চাই না, আমি মরতেই চাই, আমার মৃত্যুর জন্য আমার স্বামীই দায়ী।

     আরো পড়ুন....

পুরাতন খবরঃ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  

ফেসবুকে আমরাঃ