চোর মেরে গ্রেফতার বাড়ির মালিক

বাড়িতে সিঁধ কেটে চুরির সময় হেলাল (৩৮) নামে এক ব্যক্তিকে আটকের পর গণপিটুনি দিয়ে হত্যার অভিযোগ ওঠেছে। এ ঘটনায় বাড়ির মালিক অভিযুক্ত ওয়াহেদ আলী (৫৮), তার স্ত্রী আসমা বেগম (৫০) ও মেয়ে শাহানা আক্তারকে (২৬) গ্রেফতার করা হয়। সোমবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে এ ঘটনা ঘটে। নিহত হেলাল উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়নের বড়বড়া গ্রামের গুপপাড়া চৌধুরী কান্দা এলাকার হাফিজ উদ্দিনের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রবিবার রাতে হেলাল ওয়াহেদ আলীর বসতঘরের দরজার নিচে দিয়ে সিঁধ কেটে ঘরে প্রবেশ করে। এ সময় বাড়ির লোকজন টের পেয়ে এলাকাবাসীর সহায়তায় হেলাল উদ্দিনকে আটক করে গণপিটুনি দেন। জনতার গণপিটুনিতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। পরে স্থানীয়রা হেলালের হাত পা বাঁধা মরদেহ চৌধুরী কান্দা এলাকায় তার বাড়ির সামনে রেখে আসেন।

সোমবার সকালে পুলিশ স্থানীয়দের কাছে সংবাদ পেয়ে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। এ বিষয়ে গফরগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফারুক আহমেদ বলেন, নিহতের হেলালের বিরুদ্ধে চুরিসহ বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে। চুরির সময় পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় ওয়াহেদ আলীসহ ওই পরিবারের তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনায় হেলালের স্ত্রী সাবিনা আক্তার থানায় মামলা করেছে।

     আরো পড়ুন....

পুরাতন খবরঃ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  

ফেসবুকে আমরাঃ